1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : raihan :
  3. [email protected] : sanowar :
  4. [email protected] : themesbazar :
এখনি টিকা নিতে রাজি মাত্র ৩২ শতাংশ মানুষ - Prothom News
রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১১:৫৫ পূর্বাহ্ন

এখনি টিকা নিতে রাজি মাত্র ৩২ শতাংশ মানুষ

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৩৮ বার
Print Friendly, PDF & Email

প্রথম নিউজ ডেস্ক:

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য অর্থনীতি বিভাগের এক জরিপে দেখা যাচ্ছে দেশের ৩২ শতাংশ মানুষ টিকা কার্যক্রম শুরুর সাথে সাথে টিকা নিতে আগ্রহী। আগ্রহী আরো ৫২ শতাংশ মানুষ আছেন, তবে তারা ঠিক এ মূহুর্তেই টিকা নিতে রাজী নন।

দেশের বিভিন্ন জায়গায় প্রায় ৩ হাজার ৫০০ লোকের ওপর জরিপ চালিয়ে এই ফলাফল পাওয়া গেছে। বাংলাদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক মঙ্গলবারই জানিয়েছেন যে আগামী ৭ই ফেব্রুয়ারি থেকে টিকাদান শুরু হবে বাংলাদেশে।

এর আগে বেসরকারি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণায় উঠে এসেছিলো যে অন্তত ৭৫ শতাংশ মানুষ টিকাদানে আগ্রহী। তবে সেই গবেষণায় বলা হয়েছিলো যে শহরে বসবাসকারী নাগরিকরা গ্রামের মানুষের চেয়ে টিকা নেয়ার বিষয়ে বেশি আগ্রহী।

যদিও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় এসেছে শহরের চেয়ে গ্রামের মানুষের মধ্যে আগ্রহ বেশি।

ড. শাফিউন নাহিন শিমুল বলছেন, শহরের চেয়ে গ্রামে সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার কম এবং সে কারণে গুজব ও নেতিবাচক প্রচারণাও সেখানে তুলনামূলক কম বলেই গ্রামের মানুষের মধ্যে টিকা নেয়ার ক্ষেত্রে আগ্রহ বেশি বলে মনে করছেন তারা।

ঢাবি’র গবেষণায় যা পাওয়া গেছে
দেশের আট বিভাগের আটটি জেলা ও ষোলটি উপজেলায়, এবং ঢাকার দুটি সিটি করপোরেশনে জনসমাগম বেশি এমন জায়গাগুলোতে প্রায় সাড়ে তিন হাজার মানুষের ওপর পরিচালিত জরিপে পাওয়া গেছে যে ১৬শতাংশ মানুষ কখনোই টিকা নিতে চাননা।

‘মোট ৮৪% মানুষ টিকা নিতে আগ্রহী তবে এর মধ্যে ৫২% এখনই না নিয়ে ধীরে সুস্থে নিতে আগ্রহী,’ বলছিলেন স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইন্সটিটিউটের সহকারী অধ্যাপক ড. নাহিন।

গবেষণায় উঠে আসা তথ্য বিশ্লেষণ করে যা পাওয়া গেছে তা হলো- ঢাকা সিটিতে টিকা নেয়ার আগ্রহ তুলনামূলক কম আবার যারা টিকা নিতে ইচ্ছুক তাদের মধ্যে নারীদের সংখ্যা বেশি। আবার যদিও বিনামূল্যে না দেয়া হয় তাহলে নিম্ন আয়ের মানুষের মধ্যে টিকা নেয়ার আগ্রহ তুলনামূলক কম।

এমনকি মোট যে ৮৪% মানুষ টিকা নিতে আগ্রহী তাদের মধ্যে অর্থের বিনিময়ে টিকা নিতে আগ্রহী ৬৬%। আবার বয়স্কদের, বিশেষ করে ষাটের চেয়ে বেশি বয়স যাদের, তাদের মধ্যে টিকা নেয়ার আগ্রহ কম।

আগ্রহীরা কেন এখনি টিকা নিতে রাজি নন

ড. শাফিউন নাহিন শিমুল বলছেন, গবেষণায় তিনটি বিশেষ কারণ উঠে এসেছে টিকা নিতে অনাগ্রহের বিষয়ে। এগুলো হলো টিকার কার্যকারিতা নিয়ে সন্দেহ, পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া বা বিরূপ প্রতিক্রিয়ার ভয় এবং টিকার মান নিয়ে সন্দেহ।

এর বাইরে একদল ব্যক্তি আছেন যারা মনে করেন টিকা নেয়ার প্রয়োজনীয়তা খুব একটা নেই। তবে এই গবেষণার সাথে জড়িতরা মনে করছেন, মূলত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব আর নেতিবাচক প্রচারণার কারণেই অনেকের মধ্যে টিকা নিয়ে নেতিবাচক ধারণা তৈরি হয়েছে।

‘শহর এলাকার মানুষ টিভি ও সোশ্যাল মিডিয়া থেকে অনেক বেশি তথ্য পায়। আর বাংলাদেশে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব বা নেতিবাচক আলোচনা বেশি হয় বলেই অনেকে মনে করেন। হয়তো তারো একটা প্রভাব এটি হতে পারে,’ বলছিলেন ড. নাহিন।

নর্থ সাউথের গবেষণায় যা ছিল
দেশের আটটি জেলায় সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি মানুষের ওপর জরিপ চালিয়ে বেসরকারি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্লোবাল হেলথ ইন্সটিটিউট জানিয়েছিল, কার্যকর ও নিরাপদ টিকা নিতে চায় দেশের প্রায় ৭৫ শতাংশ মানুষ।

আর সাত শতাংশ মানুষ মোটেও টিকা নিতে ইচ্ছুক নন।

ওই গবেষণায় পাওয়া যায় যে শহরের মানুষ টিকা নিতে বেশি আগ্রহী আর টিকা নেয়া নিয়ে গ্রামের মানুষের মধ্যে অনিচ্ছা ও দ্বিধা বেশি কাজ করছে।

সূত্র : বিবিসি

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর...

ফেসবুকে আমরা…

© All rights reserved © 2020, prothomnews.com.bd