1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : raihan :
  3. [email protected] : sanowar :
  4. [email protected] : themesbazar :
পূজার খাবার নিয়ে বিজেপিতে কোন্দল - Prothom News
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৪৮ অপরাহ্ন

পূজার খাবার নিয়ে বিজেপিতে কোন্দল

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৬ অক্টোবর, ২০২১
  • ৬২ বার
Print Friendly, PDF & Email

প্রথম নিউজ ডেস্ক:

দুর্গাপূজার আয়োজন হবে কিনা তা নিয়ে এক দফা মতবিরোধ হয়ে গেছে পশ্চিমবঙ্গ বিজেপিতে। এবার পূজায় কী খাওয়া-দাওয়া থাকবে তা নিয়েও ঝামেলা বাঁধলো কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন দলটিতে। পূজার কয়েকদিন মেন্যুতে আমিষ না নিরামিষ থাকবে তা নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত রাজ্য বিজেপির নেতাকর্মীরা। আরেক পক্ষের আবার দাবি, থাকলে দুই ধরনেরই থাক।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের খবর অনুসারে, দলীয়ভাবে পূজা আয়োজনের বিরোধিতা করে মুখ খুলেছিলেন পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির সাবেক সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তার দাবি, পূজা আয়োজন করা দলের কাজ নয়। এ বিষয়ে যে খুব একটা উৎসাহী নন, সেটিও পরিষ্কার বুঝিয়ে দিয়েছিলেন এ নেতা।

কিন্তু রাজ্য বিজেপির বর্তমান সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের সম্মতি পেয়ে ঠিকই পূজার আয়োজনে ঝাঁপিয়ে পড়েন সমর্থকরা। গত বছরের মতো এবারও বিধাননগরের পূর্বাঞ্চলীয় সংস্কৃতি কেন্দ্রে হচ্ছে দুর্গাপূজার আয়োজন। থাকবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও খাওয়া-দাওয়ার আয়োজন। আর এই শেষের অংশটা নিয়েই ফের বিবাদ শুরু হয়েছে দলটির অভ্যন্তরে।

রাজ্য বিজেপি নেতাদের একাংশ পূজায় খিচুড়ি-বেগুনভাজার পক্ষে। তাদের যুক্তি, বিজেপির আয়োজনগুলোতে এমনিতেই নিরামিষ খাবারের ব্যবস্থা থাকে। তার ওপর নির্বাচনের পর দলের আর্থিক অবস্থা ভালো নয়। এ কারণে বাহুল্য খরচ আপাতত বাদ থাক।

অন্য পক্ষের দাবি, বাঙালি ভোজে আমিষ না থাকলে কি চলে! তাদের মাছ-মাংস চাই-ই চাই। অবশ্য এতে যে খরচ বাড়বে, তা স্বীকার করে নিয়েছেন তারা।

আবার বিজেপির ভেতরেই তৃতীয় আরেকটি পক্ষ বলছে, আয়োজনে দু’ধরনের খাবারই থাক। অনেকে পূজার দিনগুলোতে আমিষ খান না। তাদের জন্য নিরামিষের ব্যবস্থা হোক, বাকিদের জন্য আমিষ।

ফলে পূজায় কী ধরনের খাবার পরিবেশন করা হবে, তা নিয়ে আপাতত তিন ভাগে বিভক্ত গেরুয়া শিবির। এখন দেখার অপেক্ষা, কোন পক্ষের মত শেষপর্যন্ত টিকে থাকে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর...

ফেসবুকে আমরা…

© All rights reserved © 2020, prothomnews.com.bd