1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : raihan :
  3. [email protected] : sanowar :
  4. [email protected] : themesbazar :
যেভাবে পরীমণির সাথে পরিচিত হয়েছিলেন সিটি ব্যাংকের এমডি - Prothom News
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:১৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
গাজীপুরে মেয়েকে বিদায় জানাতে গিয়ে মায়ের মৃত্যু মিয়ানমারে মুসলিমবিরোধী উগ্র ভিক্ষুকে মুক্তি দিলো জান্তা সরকার জীবনমান উন্নয়নে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী সুপ্রিম কোর্ট বার সম্পাদক সম্পর্কে সংসদে অশোভন মন্তব্যের প্রতিবাদ অবৈধ ক্ষমতা দীর্ঘায়িত করতেই জামায়াত নেতৃবৃন্দকে গ্রেফতার: রেজাউল করিম অবিলম্বে জামায়াত নেতৃবৃন্দকে মুক্তি দেয়ার দাবি, অন্যথায় তীব্র গণ-আন্দোলন : ড. মাসুদ বিশ্বব্যাংকের কথার সাথে কাজের মিল নেই : কাদের সারাদেশে একযোগে ভেজালবিরোধী অভিযানে র‍্যাব আফগান জনগণ যা চায়, তা মেনে নেবে বাংলাদেশ: মোমেন গোলাম পরোয়ার-সহ ১০ জনকে গ্রেফতারে লেবার পার্টির নিন্দা

যেভাবে পরীমণির সাথে পরিচিত হয়েছিলেন সিটি ব্যাংকের এমডি

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৯ আগস্ট, ২০২১
  • ৯১ বার
Print Friendly, PDF & Email

প্রথম নিউজ ডেস্ক:

গত বুধবার রাজধানীর বনানীর বাসায় র‌্যাব অভিযানের পর অভিনেত্রী পরীমণিকে আটক করা হয়েছে। এরপর থেকেই পরীমণির সাথে সংশ্লিষ্ঠ বিভিন্ন নাম সামনে আসছে। যে তালিকায় আছে চিত্রপরিচালক, পুলিশ কর্মকর্তা ও ব্যাংক কর্মকর্তার নাম। এরমধ্যে পরীমণিকে সাড়ে তিন কোটি টাকার গাড়ী উপহার দেয়াকে কেন্দ্র করে নাম এসেছে সিটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মাসরুর আরেফিনের নাম। সমালোচনা হচ্ছে এতোটাকার গাড়ি উপহার দেয়ার বিষয়টি নিয়ে।

তবে সিটি ব্যাংকের এমডি মাসরুর আরেফিন গাড়ী উপহার দেয়ার কথা অস্বীকার করেছেন। রোববার রাতে নিজে ফেসবুকে পেইজে একটি পোস্ট দিয়ে বলেছেন, ‘এক প্রবল মিথ্যাচারের শিকার হলাম আমি।’ এসময় তিনি পরীমণির সাথে কিভাবে পরিচিত হয়েছেন সেটাও উল্লেখ করেছেন। আরেফিনের ভাষ্য অনুযায়ী বোট ক্লাবের ঘটনার আগে ‘পরীমণি’নামের তার কোনো পরিচয় ছিল না।

তিনি পোস্টে লিখেছেন, ‘বোট ক্লাব‘ ঘটনার আগে পর্যন্ত পরীমণি নামটাও শুনিনি। আমার তখন মানুষকে জিজ্ঞাসা করতে হয়েছিল যে, কে এই পরীমণি? আমার কাজ সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ব্যাংকিং আর তারপর সাহিত্য নিয়ে পড়ে থাকা। ঢাকার কেউ (যারা ক্লাবে যান তাদের কেউও) বলতে পারবেন না তারা আমাকে কোনোদিন কোনো ক্লাব বা পার্টিতে দেখেছেন (এখানে আমি ক্লাব বা পার্টিতে যাওয়ার নিন্দা করছি না, সেটা যারা যাবার তারা যেতেই পারেন; আমি শুধু বোঝাচ্ছি যে মানুষ হিসাবে আমার টাইপটা কী?)। এতটাই অফিস ও ঘরমুখী এক মানুষ আমি।
অতএব বলছি, পরীমণিকে গাড়ি দেয়ার কথাটা আমার কানে লাগছে মঙ্গল গ্রহের ভাষায় বলা কিছুর কথার মতো।’

তার নিজেরই ব্যক্তিগত গাড়ি নেই। এই অবস্থায় এতো দামি গাড়ি কিভাবে উপহার দিবেন সেটা নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেছেন আরেফিন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমার নিজের একটাও গাড়ি নেই। ব্যাংক আমাকে চলার জন্য গাড়ি বরাদ্দ দিয়েছে, তাতেই চড়ি। ব্যাংকের চাকরির শেষে নিশ্চয় কোনো ব্যাংক থেকে কার লোন নিয়ে একটা গাড়ি কিনে তাতে চড়ব।’

তিনি তার পোস্টের একেবারে শেষ দিকে মিথ্যাচারের জন্য সমাজের আদালতে বিচার দিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর...

ফেসবুকে আমরা…

© All rights reserved © 2020, prothomnews.com.bd